দুঃস্বপ্নের এক প্রবাস জীবন।

একজন প্রবাসীর ওপর ভর করে একটি পরিবার স্বপ্নের পসরা সাজায়। এপারে ভরসা করে ওপারে বুনতে থাকে স্বপ্নের জাল। অনেক পরিবার তিন-বেলা খাবারের জন্যও চেয়ে থাকে এই প্রবাসীর ওপর। হাজারও দায়িত্ব কাঁধে নিয়ে জন্মভূমি ও জননীকে ছেড়ে অচেনা অজানা দেশে পাড়ি জমায় হাজারও প্রবাসী কেউ বলেন স্বপ্ন পূরণের আরেক না প্রবাসজীবন। কিন্তু তারা জানেই না কতটা ঝুঁকি নিয়ে এই মানুষগু’লো পরিবারের স্বপ্ন পূরণ করে যাচ্ছে।

কিন্তু সব প্রবাসীরা কী পারে তার পরিবারের সকল স্বপ্ন পূরণ করতে? হয়ত চাইলেও অনেকেই তা করতে পারে না। অনেক সময় আমর’া অনেক প্রবাসীর মৃ’ত্যুর সংবাদ পায়। আবার কখনো লা’শের খবরও মেলে না। হায়রে পরবাস জীবন! আমর’া যারা সি’ঙ্গাপুর প্রবাসী তারা প্রায় বেশিরভাগই মধ্যবিত্ত ও নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের।

দেশে কঠোর পরিশ্রম করার অভ্যাস নেই কারোরই। পরিবারের একটু সুখের আশায় স্বপ্নের দেশগু’লোতে পাড়ি জমায়। কিন্তু আমা’দের বেশিরভাগ সি’ঙ্গাপুর প্রবাসী ভাইদের কপালেই সি’ঙ্গাপুরটা স্বপ্নের মতো হয় না। এখানে প্রত্যেহ অমানবিক পরিশ্রম করা যেন আমা’দের প্রবাসী ভাইদেরই নিত্যস’ঙ্গী। দেশে শারীরিক পরিশ্রমে অভ্যস্ত না হওয়ার কারণে যেটা নিজের স’ঙ্গে মানিয়ে নেয়া আরও দুর্বি’ষহ হয়ে পড়ে।

তাছাড়া পাশাপাশি আরও যোগ হয় ফোরম্যান বা সুপারভাইজারের দুর্ব্যবহার। সিনিয়র সহকর্মীদের অসহযোগিতা, ক্যাটারিং নামক অখাদ্য ভক্ষণ, পরিমিত ঘু’ম না হওয়া, পরিশ্রমের তুলনায় বেতন পর্যা’প্ত না হওয়া, বেতনের তুলনায় খরচ বেশি হওয়া ইত্যাদি। আমর’া সাধারণ শ্রমিকরা যখন কঠোর পরিশ্রমে গাঁ ভিজিয়েও বস বা ফোরম্যানদের খুশি করতে না পেরে তাদের মুখের বাজে ভাষা শুনি তখন হয় তো মনে মনে বলেই ফেলি যে না আর এখানে থাকব না। দেশে চলে যাব’।

কিন্তু পরক্ষণেই যখন পরিবারের ওপর ঋণের বোঝার কথা মনে পড়ে তখন হয় তো নিজেকে এখানে বিলিয়ে দেয়া ছাড়া আর কিছুই করার থাকে না। দিন যায়, মাস আসে, বছর যায় যুগ আসে। একটা সময় হয়তো আমর’া এসব প্রতিকূলতার স’ঙ্গে নিজেকে মানিয়ে নেই। মানিয়ে নিয়ে পরিবারের মানুষগু’লোকে সুখে রাখার জন্য।

এভাবেই বছর থেকে দশক বা যুগ বা আরো বেশি সময় কাটিয়ে দেই পরবাসে। এই আ’ত্মত্যাগের বর্ণনা দিয়ে অনুভূ’তিহীন মানুষগু’লোকে বোঝানো খুব কঠিন। প্রবাস জীবন কখনোই সুখকর হয় না। তবু মানুষ প্রবাসী হয়। পরিবারের মানুষগু’লোকে একটু ভালো রাখার আশায়, এদের স্বপ্ন পূরণের দায়িত্ব নিয়ে পাড়ি জমায় প্রবাস নামের যন্ত্রণায়।

নানামুখী কারণে প্রবাসী হওয়া এসব মানুষগু’লোর কাঁধে একটি নয় দু’টি নয় গোটা পরিবারের স্বপ্ন পূরণের দায়িত্ব থাকে। যে দায়িত্বের কথা চিন্তা করে এরা ভুলে যায় নিজের স্বপ্নকে। দেশে রেখে আসা পরিবারের সদস্যদের স্বপ্ন পূরণকে একমাত্র লক্ষ্য হিসেবে স্থীর করে প্রতিনিয়ত সহ্য করে যাচ্ছে অসহনীয় কষ্ট। অসহনীয় কষ্টের আরেক নাম প্রবাসী জীবন। ভালো থাকুক আমা’র সকল সি’ঙ্গাপুর প্রবাসী ও বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কোটি কোটি ত্যাগী বীর প্রবাসী ভাইয়েরা। – জাগোনিউজ২৪.কম